কাজেরক্ষেত্রেসুরক্ষা

কোনক্ষতিকরকাজনয়

অসুরক্ষিত এবং অস্বাস্থ্যসম্মত  পরিবেশে সন্তান প্রসবের পূর্ববর্তী এবং পরবর্তী সময়ে মহিলা শ্রমিককে কাজে নিয়োগ করতে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে (গর্ভকালীন সময়ের ১০-সপ্তাহ পূর্বে এবং গর্ভকালীন সময়ের ১০ সপ্তাহ পরবর্তি সময়ে কোন শ্রমসাধ্য কাজে নিয়োগে নিষেধাজ্ঞা)

ব্যতিক্রম প্রযোজ্য চা বাগানের কর্মীদের ক্ষেত্রে, যারা অপেক্ষাকৃত হালকা কাজ করতে পারবে (উপরে উল্ল্যেখিত গর্ভকালীন সময়ের প্রাক ১০ সপ্তাহ এবং পরবর্তী ১০ সপ্তাহ) যদি তা চা বাগানের / এস্টেট এর চিকিৎসক দ্বারা প্রত্যয়িত করা হয়ে থাকে। এই ধরণের কাজের জন্য প্রসূতি কল্যান সুবিধার অধিকার ক্ষতিগ্রস্থ হতে পারবে না। প্রসূতি মা এবং শিশুদের জন্য (৬ বছরের কম নিচে) কক্ষ সেবা ব্যবস্থা প্রদান করার দায়িত্ব নিয়োগকর্তার। কোন মহিলা কে তার অনুমতি ছাড়া কোন প্রতিষ্ঠানে রাত ১০টা হতে সকাল ৬টার মধ্যে কাজ করতে বলা যাবে না (প্রসূতি, নতুন মা এবং অন্য যে কোন মহিলার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য)।

(শ্রম আইন ২০০৬ এর ধারা ৪৫ (৩), ৯৪ এবং ১০৯)                                      

চাকরিচ্যুত/বরখাস্তহওয়াথেকেসুরক্ষা

একজন মহিলা কর্মীর চাকরি গর্ভাবস্থায় বা প্রসূতিকালীন ছুটির সময় সুরক্ষিত থাকে। যদি কোন মহিলা শ্রমিক কে সন্তান প্রসবের পূর্বের ৬ মাস এবং সন্তান প্রসবের পরবর্তী ৮ সপ্তাহ মেয়াদের মধ্যে চাকরি হতে ডিসচার্জ, বরখাস্ত বা অপসারণ করার জন্য অথবা তার চাকরি অন্যভাবে অবসানের জন্য নিয়োগকর্তা দ্বারা কোন নোটিশ বা আদেশ প্রদান করে এবং সেই নোটিশের কোন যথাযথ কারণ না থাকে, তাহলে সংশ্লিষ্ট মহিলা কর্মী প্রসূতিকালীন সময়ে যে সকল সুবিধা পাওয়ার অধিকার রাখে তা হতে বঞ্চিত হবে না। 

(শ্রম আইন ২০০৬ এর ধারা ৫০, সংশোধিত ২০১৩) 

একইপদেফেরতআসারঅধিকারঃ

শ্রম আইন ২০০৬ অনুযায়ী একই পদে পুনরায় বহাল হওয়ার কোন বিধান নেই। তবে শ্রম আইনের ধারা ৫০ অনুযায়ী বলা যায় যে, যেহেতু প্রসূতিকালীন ছুটির সময়ে একজন কর্মীর চাকরি সুরক্ষিত থাকে, তাই একই পদে না হলেও সে চাকরিতে পুনঃবহাল হতে পারবে।