প্রসূতি এবং কাজ

প্রসূতিকালীনছুটি

যেকোন মহিলা শ্রমিকের ১৬ সপ্তাহ পর্যন্ত প্রসূতিকালীন ছুটি নেওয়ার অধিকার আছে (৮ সপ্তাহ প্রাক গর্ভকালীন এবং ৮ সপ্তাহ পরবর্তী গর্ভকালীন পর্যন্ত পারিশ্রমিক সহ ছুটি দেওয়ার নিয়ম আছে)। একজন গর্ভবতী মহিলাকে তার শিশু জন্মদানের প্রত্যাশিত তারিখের ৮ সপ্তাহ পূর্বে বা প্রত্যাশিত তারিখের ৭ দিনের মধ্যে জন্মদান করেছেন তা জানিয়ে তার নিয়োগকর্তার কাছে মৌখিক বা লিখিত নোটিশ দিতে হবে। কোন মালিক তার প্রতিষ্ঠানে সজ্ঞানে কোন মহিলাকে তার সন্তান প্রসব তারিখের পরবর্তী ৮ সপ্তাহের মধ্যে কাজ করাতে পারবে না এবং কোন মহিলা নিজেও কোন প্রতিষ্ঠানে প্রসবের ৮ সপ্তাহের মধ্যে কোন প্রতিষ্ঠানে কাজের জন্য নিয়োগ নিতে পারবে না। গর্ভাবস্থায় তৈরি কোন অসুস্থতা বা জটিলতার জন্য কোন ধরণের ছুটির অধিকার নেই। একইভাবে একাধিক জন্মদানের ক্ষেত্রে প্রসূতিকালীন ছুটির কোন প্রসারন নেই। 

বেতন

শ্রম আইন ২০০৬ অনুযায়ী, একজন মহিলার ১৬ সপ্তাহের প্রসবকালীন ছুটির মজুরী তার পূর্ববর্তী দৈনিক, সাপ্তাহিক বা মাসিক মজুরীর গড় হারে পাওয়ার অধিকার রাখে। একজন শ্রমিককে এজন্য তার নিয়োগকর্তার অধীনে সন্তান প্রসবের পূর্বে ন্যূনতম ৬ মাস কাজ করতে হবে। যতক্ষন একজন শ্রমিক নিবন্ধিত চিকিৎসকের স্বাক্ষরসহ সার্টিফিকেট এবং উপযুক্ত প্রমানসহ সন্তান জন্মগ্রহন করেছে এরূপ ফর্ম নিয়োগকর্তার কাছে জমা না দেয় ততক্ষন নিয়োগকর্তা এই সকল প্রসূতিকালীন সুবিধা প্রদান করতে বাধ্য থাকবে না। উপরন্ত কোন মহিলা শ্রমিককে এই সকল সুবিধা প্রদান করা হবে না যদি প্রসবকালীন সময়ে তার পূর্বের দুই বা তার অধিক সন্তান জীবিত থাকে (যদিও সে একটি নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত বিনা মজুরীতে ছুটির অধিকার রাখে)। যেকোনো মহিলা শ্রমিক সম্ভাব্য প্রসব তারিখের পূর্বের ৮ সপ্তাহ এবং প্রসবের পরবর্তী ৮ সপ্তাহের মধ্যে প্রসূতিকালীন সুবিধা পাওয়ার অধিকার রাখে। একটি প্রতিষ্ঠানে প্রসূতিকালীন সুবিধা নিয়োগকর্তা দ্বারা প্রদান করা হয় এবং এটি প্রতিষ্ঠানের সকল মহিলা শ্রমিকের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। প্রসূতিকালীন সুবিধা পাওয়ার অধিকারি কোন মহিলা সন্তান প্রসবকালে অথবা তার পরবর্তী ৮ সপ্তাহের মধ্যে মৃত্যুবরণ করলে, নিয়োগকর্তা, যদি সেই শিশুটি বেঁচে যায় সেই শিশুর তত্ত্বাবধানকারীকে এবং যদি শিশুটি জীবিত না থাকে তাহলে মহিলা দ্বারা মনোনীত ব্যক্তিকে অথবা মনোনীত ব্যক্তি না থাকলে মৃত মহিলার আইনী প্রতিনিধিকে সেই প্রসুতিকালীন সুবিধা প্রদান করতে হবে। অবশ্য যদি কোন মহিলা শ্রমিক সন্তান জন্মদান করার পূর্বে মারা যায়, তাহলে, সেই মহিলার পূর্বের সময় থেকে মৃত্যুর তারিখ পর্যন্ত সুবিধা প্রদান করবে তবে ইতিমধ্যে প্রসূতিকালীন সুবিধা হিসেবে যা প্রদান করা হয়েছে নিয়োগকর্তা তা ফেরতযোগ্য নিতে পারবে না। 

(শ্রম আইন ২০০৬ এর ধারা ৪৬(১-২), ৪৭(৪-৫) এবং ৪৯, সংশোধিত ২০১৩)  

বিনামুল্যেচিকিৎসাসেবা

শ্রম আইন ২০০৬ এর অধীনে কোন প্রকার চিকিৎসা সুবিধার অধিকার নেই। 

প্রসূতি এবং কাজের উপর বিধানসমূহঃ

  • বাংলাদেশ শ্রম আইন ২০০৬, সংশোধিত ২০১৩ / Bangladesh Labour Act 2006, amended in 2013
© WageIndicator 2017 - Cite this page: Mywage.org.bd - প্রসূতি এবং কাজ