অপ্রাপ্তবয়স্কএবংকিশোর

কাজেনিয়োগেরজন্যসর্বনিম্নবয়স

শ্রম আইন ২০০৬ অনুযায়ী শিশুদের নিয়োগ নিষিদ্ধ এবং কোন কারখানায় তাদের কে নিয়োগ করার ক্ষেত্রে যোগ্যতা সার্টিফিকেটের প্রয়োজন হয়। শিশু বলতে তার বয়স চৌদ্দ বছর সম্পন্ন হয়েছে এবং কিশোর বলতে ষোল বছর সম্পন্ন হয়েছে কিন্তু সে ১৮ বছরের নিচে এমন ব্য্যক্তি কে বোঝায়। ব্যতিক্রম ক্ষেত্রে, কোন শিশু বার বছর সম্পন্ন করেছে এমন শিশু কে হালকা কাজে নিয়োজিত করা যাবে যেখানে শিশুটির শারীরিক স্বাস্থ্য এবং উন্নয়নে বা মানসিক বিকাশে কোন প্রকার ব্যাঘাত ঘটাবে না। এই ধরনের শিশুদের কাজের সময় এমনভাবে নির্ধারণ করতে হবে যাতে করে তাদের স্কুলের উপস্থিতির কোন সমস্যা না হয়। শ্রম আইনের অধীনে শিশুদের শ্রম চুক্তি তাদের পিতামাতা বা অভিভাবক দ্বারা করার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা আছে। কিশোর শ্রমিকদের ক্ষেত্রে তাদের উপযুক্ততার সার্টিফিকেট নিবন্ধিত চিকিৎসক দ্বারা প্রদান করা বাধ্যতামূলক। এই ধরনের যোগ্যতা সার্টিফিকেট ইস্যু করার তারিখ হতে বার মাসের একটি নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত কার্যকর থাকে।

(শ্রম আইন ২০০৬ এর ধারা ৩৪-৩৮ ও ৪৪, সংশোধিত ২০১৩)  

বিপজ্জনককাজেরক্ষেত্রেসর্বনিম্নবয়স

বিপজ্জনক কাজের জন্য নির্ধারিত সর্বনিম্ন বয়স ১৮ বছর। ১৬ বছরের উপরে এবং ১৮ বছরের নিচে শ্রমিকদেরকে কোন প্রতিষ্ঠানে যন্ত্রপাতি চালু অবস্থায় পরিষ্কারের জন্য, তেল প্রদানের জন্য বা তাকে সুবিন্যস্ত করার জন্য বা সেই যন্ত্রের চলমান অংশগুলোর মাঝে বা স্থির এবং চালু অংশের মাঝে কাজ করার অনুমতি দেওয়া যাবে না। কোন কিশোর এমন কোন যন্ত্রের কাজ করবে না যদি না সে উক্ত যন্ত্রপাতি সংক্রান্ত বিপদ সম্পর্কে এবং এই ব্যাপারে সাবধানতা অবলম্বন সম্পর্কে সম্পূর্ণ ভাবে অবগত থাকে অথবা সেই যন্ত্রতে কাজ করার ব্যাপারে সে যথেষ্ট প্রশিক্ষন গ্রহন করেছে বা সেই যন্ত্র সংক্রান্ত অভিজ্ঞ এবং পুরোপুরি জ্ঞানসম্পন্ন ব্যক্তির তত্তাবধানে কাজ করে। একজন কিশোর শ্রমিক কোন কারখানা বা খনিক্ষেত্রে দিনে ৫ ঘণ্টা এবং সপ্তাহে ৩৩ অধিক কাজ করতে পারবে না এবং অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে দিনে ৭ ঘণ্টা এবং সপ্তাহে ৪৫ ঘণ্টার অধিক কাজ করতে পারবে না। কোন কিশোর শ্রমিককে কোন প্রতিষ্ঠানে সন্ধ্যা ৭টা হতে সকাল ৭টার মধ্যে কাজ করতে দেওয়া যাবে না। কোন কিশোর শ্রমিককে ভূগর্ভে বা পানির নিচে বা অন্য বিপজ্জনক কাজে নিয়োগ দেওয়া যাবে না। ২০১২ সালে সরকার শিশুদের জন্য নিষিদ্ধ কাজের একটি তালিকা তৈরি করে, তবে এটি এখন অনুমোদিত হয়নি। এই তালিকাতে জাহাজ ভাঙ্গা, চামড়া প্রক্রিয়াজাতকরন, নির্মাণকাজ এবং মোটরকারখানাতে কাজ সহ ৩৬টি পেশার কথা বলা হয়েছে।

ইতিমধ্যে, একটি নতুন আইন অনুমোদন করা হয়েছে (শিশু আইন ২০১৩) যা শুধু শিশুদের কাজের জন্য আইনগত বয়স স্থির করে না বরং যদি কর্মসংস্থানে শিশু শোষিত (একটি শিশুর জীবন এবং উপার্জনকে জব্দ করার মাধ্যমে) হয় তাহলে কঠোর শাস্তিও নির্ধারণ করে যা হল দুই বছর কারাদণ্ড থেকে শুরু করে ৫০,০০০টাকা পর্যন্ত জরিমানা বা উভয়ই হয়ে থাকে। যদি কোন ব্যক্তি বিশেষ লাভ ভোগের জন্য কোন শিশুর কর্মসংস্থান করে বা অনৈতিক বিনোদনের জন্য কোন শিশুকে ব্যবহার করে তবে তাকে সেই দোষের পোষক হিসেবে ধরা হবে।

(শিশু আইন ২০১৩ এর ধারা ৮০, শ্রম আইন ২০০৬ এর ধারা ৩৯-৪২, সংশোধিত ২০১৩) 

কাজেরক্ষেত্রেশিশুশ্রমিকনিয়োগেনিয়মাবলিঃ

  • বাংলাদেশ শ্রম আইন ২০০৬, সংশোধিত ২০১৩ / Bangladesh Labour Act 2006, amended in 2013
  • শিশু আইন ২০১৩ / Children's Act 2013
© WageIndicator 2017 - Cite this page: Mywage.org.bd - কাজের ক্ষেত্রে শিশু